নরসিংদীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা

:: নাগরিক প্রতিবেদন ::

নরসিংদীর রায়পুরায় সন্ত্রাসীদের প্রকাশ্যে গুলিতে নিহত হয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল মানিক। শনিবার বিকেলে রায়পুরায় দুর্গম চরাঞ্চল মির্জাচরে ইউনিয়নের শান্তিপুর স্কুলমাঠে যাওয়ার পথে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তিনি মির্জাচর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছিলেন।

ইউনিয়নের শান্তিপুর বাজার থেকে শান্তিপুর স্কুলে একটি সভায় যাওয়ার পথে একদল অস্ত্রধারী শটগান দিয়ে তাকে গুলি করে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

সংকটাপন্ন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত ঢাকা নেওয়ার পরামর্শ দেয়। এ সময় প্রথমে সাহেপ্রতাপ ও পরে মাধবদীতে পুলিশ তাদের অ্যাম্বুলেন্স তল্লাশি করে বলে জানায় চেয়ারম্যানের শ্যালক এরশাদ সরকার।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নিহতের ভাই বারসন মিয়া জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষরা তাকে গুলি করে হত্যা করেছে।

মির্জাচর ইউনিয়নের ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক স্বাধীন খান রুবেল জানান, এলাকার আধিপত্ব বিস্তার নিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান ফারুকুল ইসলাম ও নিহত চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল মানিকের মধ্যে দ্বন্ধ চলে আসছিল। ঝগড়া ও দ্বন্দ্বের জেরে ফারুকুল ইসলাম ও তার সমর্থকরা এলাকা ছাড়া হয়ে পড়ে। সম্প্রতি তারা এলাকায় ফিরে আসে।

তিনি জানান, এরই মধ্যে গেল শুক্রবার দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ মীমাংসা হওয়ার কথা ছিল এবং তারা বসছিল। কিন্তু ফারুক সমর্থকরা তা না মেনে আগামী শুক্রবার মীমাংসার তারিখ নির্ধারণ করতে চায়। এই নিয়ে গতকাল শুক্রবার তাদের দুই সমর্থকদের মধ্যে কথাকাটাকাটিও হয়। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রায়পুরা সার্কেল) সত্যজিত ঘোষ জানান, সাবেক চেয়ারম্যান গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। কিন্তু মারা যাওয়ার বিষয়টি এখনো নিশ্চিত হতে পারিনি। তাকে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে। আমরা এলাকায় যাচ্ছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *