জগন্নাথ হলের ভবন থেকে পড়ে ঢাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

:: নাগরিক প্রতিবেদন ::

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে লিমন কুমার রায় (২১) নামের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। আজ বুধবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত লিমন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। তার গ্রামের বাড়ি নীলফামারী।

হল সূত্রে জানা যায়, ওই শিক্ষার্থী হলের সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের ৪০২১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। আজ সকালে তিনি ওই ভবনের ছাদে ফোনে কারও সঙ্গে কথা বলছিলেন। এক পর্যায়ে ছাদ থেকে তিনি লাফ দেন। পরে হলের শিক্ষার্থীরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. গোলাম রাব্বানী বলেন, একটি দুঃখজনক দুর্ঘটনার খবর পেলাম। ওই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

লিমন কুমারের এক রুমমেট বলেন, “আজকে ওর ইনকোর্স পরীক্ষা ছিল। কাল রাতে রুমে পড়াশোনা করেছিল। বিভিন্ন কথার ফাঁক দিয়ে সে বলে, ‘কী যে করি- পড়া মনে থাকছে না। ‘ এরপর আজ সকাল সাড়ে ৮টায় ঘুম থেকে উঠি। ৯টা থেকে আমার ক্লাস থাকায় আমি ফ্রেশ হচ্ছিলাম। এ সময় সে তার বেডে শুয়ে ফোন দেখছিল। তাকে জিজ্ঞেস করি, কী রে পরীক্ষা না তোর? পরীক্ষা দিতে যাবি না? সে বলে, ‘যাব। কিছু মনে থাকছে না। ’ এরপর আমি আচ্ছা বলে রুম থেকে বের হয়ে যাই। তখন রুমে লিমন ছাড়া অন্য আরো দুইজন ঘুমিয়ে ছিল। পরে ক্লাসে এসে শুনি সে মারা গেছে। “

হল কর্মকর্তা মানিক কুমার দাস বলেন, ‘আমি অন্য একটি ভবনে জার্মানির পতাকা লাগানোর জন্য কাজ করছিলাম। এ সময় এক শিক্ষার্থী এসে আমায় বলে, কেউ একজন ওই ভবনের সামনে পড়ে গেছে। আমি গিয়ে দেখি অল্প অল্প নড়াচড়া করছে। এরপর আমি ওঁকে কোলে করে রিকশায় তুলে এখানে মেডিক্যালে নিয়ে যাই। রিকশায় তোলা পর্যন্ত ও একটু নড়াচড়া করছিল। এখানে আনার পর ডাক্তার তাকে স্পটডেড বলেন। ’

জগন্নাথ হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অতনু বর্মন বলেন, ‘আমিও ঘটনাটা শুনেছি। শুনেছি সে খুব ভালো ছেলে ছিল। সে ডিপার্টমেন্ট নিয়ে একটু চাপে ছিল। এরপর আজ সকাল ৯টায় সে ছাদে উঠেছে। এরপর এ ঘটনা। ’ তবে তিনি নিশ্চিত করে বলেননি যে লিমন লাফ দিয়ে পড়েছেন।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূর মোহাম্মদ বিষয়টি জানিয়ে বলেন, আমি ঘটনা শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। ঢাবির ছাত্ররা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় নিয়ে আসেন। তারা জানিয়েছেন, জগন্নাথ হলের সন্তোষ চন্দ্র ভট্টাচার্য ভবন থেকে নিচে পড়ে যায় লিমন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *