জাতীয় পার্টির সব পদ থেকে রাঙ্গাকে অব্যাহতি

:: নাগরিক প্রতিবেদন ::

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ সব পদ পদবি থেকে বিতর্কিত সংসদ সদস্য মশিউর রহমান রাঙ্গাকে অব্যাহতি দিয়েছে দলটি।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের দলীয় গঠনতন্ত্রে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এই সিদ্ধান্ত নেন। 

ইতোমধ্যে এ আদেশ কার্যকর হয়েছে ব‌লে দ‌লের প্রেস উইং থে‌কে জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে।

দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য রাঙ্গার বিরুদ্ধে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে জাপার একটি সূত্র। যদিও দলের এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করেছেন অব্যাহতি পাওয়া মসিউর রহমান রাঙ্গা। অব্যাহতির সিদ্ধান্তকে ‘অগণতান্ত্রিক’ আখ্যা দিয়ে জাপা চেয়ারম্যানের ভূমিকার সমালোচনা করে রাঙ্গা বলেন, ‘উনি (জি এম কাদের) স্বপ্নে দেখে ওইটা (অব্যাহতি) দিয়ে দিয়েছেন। ওনার ইচ্ছেমতো মনের মাধুরী মিশিয়ে যখন যাঁকে দলে নিয়ে আসবেন, যখন যাঁকে ইচ্ছা বিতাড়ন করবেন। এইবার আমি এটা চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করলাম। আমি দেখব উনি কোন আইনে এটা করেছেন।’

রাঙ্গা বলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদও জি এম কাদেরকে অনেকবার বহিষ্কার করেছিলেন। এখন তিনি কথায় কথায় অন্যদেরকে বহিষ্কার করেন। এবার এটার শেষ দেখে নেব। এরশাদ সাহেবের মৃত্যুর পর দলের নবম কাউন্সিলে জি এম কাদের চেয়ারম্যান আর আমি মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছিলাম। কিন্তু তিনি আমাকে মহাসচিব পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন।’

তিনি, ‘আমি যেহেতু দলে ঠিকমতো সময় দিতে পারতাম না, তাই এটা মেনে নিয়েছিলাম। কিন্তু এখন তিনি এটা কি করলেন? অন্যের কথা শুনে তিনি এটা করেছেন তো, তারা উনাকে রক্ষা করতে পারবে কিনা দেখা যাবে।’

রংপুর-১ আসনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য, পরিবহন মালিক সমিতির নেতা মসিউর রহমান রাঙ্গা জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপের পদেও রয়েছেন। তিনি একসময় জাতীয় পার্টির মহাসচিবের দায়িত্বও পালন করেছেন।

২০১৪ সালে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন তিনি। জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা এইচ এম এরশাদ জীবিত থাকাকালে ২০১৮ সালে রাঙ্গাকে দলের মহাসচিব করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *