বহুমুখী প্রতিভার লতিফুল ইসলাম শিবলী

:: ফজলে এলাহী ::

বাংলাদেশি শিল্প সংস্কৃতিতে ৯০ দশকে তরুণরা জোয়ার এনে পুর্ণতা দিয়েছিলো তাদের মধ্যে অন্যতম এক তরুণের নাম লতিফুল ইসলাম শিবলী। আপাদমস্তক এক বাংলাদেশির নাম লতিফুল ইসলাম শিবলী।

লতিফুল ইসলাম শিবলী এই নামটি ৯০ দশকে বাংলাদেশের অডিও ক্যাসেটের কভারে কতবার দেখেছিলেন বলতে পারবেন? জানি প্রশ্নটি খুব কঠিন হয়ে গেছে । কারন সেই সময়ের কোন শ্রোতাই হিসেব করে বলতে পারবে না যে ঐ নামটি কতবার দেখেছিল । কারন ‘লতিফুল ইসলাম শিবলী’ নামটি সেই সময়ে কতশত অডিও ক্যাসেটের দারুন জনপ্রিয় সব গানে দেখতে পেয়েছিল তা হিসেব করে বলা মুশকিল । শিবলী’র লিখা কত গান যে আজো শ্রোতারা গুনগুন করে তা হিসেব করা বলা মুশকিল । স্বয়ং লতিফুল ইসলাম শিবলী নিজেও হিসেব করে বলতে পারবেন না যে কতগুলো গান তাঁর শ্রোতাপ্রিয় হয়েছিল ।

শিবলী শুধু নিজেকে গান লিখার মধ্যেই আবদ্ধ রাখেননি । তিনি নাট্যকার, মডেলিং , অভিনেতা হিসেবেও আমাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছিলেন । ৯০ দশকের মাঝামাঝি সময়ে ‘সেঞ্চুরি ফেব্রিকস’ এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে আসেন যেখানে তিনি ছিলেন চুলের ঝুঁটিবাধা ফ্যাশন সচেতন এক মানুষ যেখানে তিনি হলেন ‘কমপ্লিট ম্যান’।

লতিফুল ইসলাম শিবলী বাংলা ব্যান্ড ও আধুনিক গানের এক অসাধারন , দুর্দান্ত গীতিকার যিনি ৯০ দশকে এই অডিও ইন্ডাস্ট্রিতে আসেন । যার লিখা গান গেয়ে ‘ফিলিংস’ (বর্তমান নগর বাউল) ব্যান্ড এর নবজন্ম হয়েছিল । যার লিখা গান গেয়ে আইয়ুব বাচ্চু, জেমস, টিপু, শাফিন, আগুন, তপন চৌধুরী’র মতো জনপ্রিয় শিল্পীরা আরও বেশি জনপ্রিয় হয়েছিলেন । ১৯৯৩ সালে প্রকাশিত ‘ফিলিংস’ ব্যান্ড এর ২য় অ্যালবাম ‘জেল থেকে বলছি’ প্রকাশের পর শ্রোতারা লতিফুল ইসলাম শিবলী নামটি’র সাথে পরিচিত হয়। এরপর থেকে বারবার এই নামটি শ্রোতাদের সামনে আসে আর দারুন সব গানে মন কেড়ে নেয় ।

শিবলী গান লিখতেন জীবনের চলার পথের ঘটে যাওয়া নিজের চোখে বিভিন্ন বাস্তবত ঘটনাগুলোকে কেন্দ্র করে । যা তাঁর গানকে করেছে অন্যরকম সুন্দর । ইন্টারমিডিয়েটে পড়াকালীন সময়ে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে যোগ দেয়ায় যেতে হয়েছিল জেলে সেই স্মৃতি থেকে লিখলেন ‘জেল থেকে বলছি’ যা ছিল ‘ফিলিংস’ ব্যান্ড এর ২য় অ্যালবামের শিরোনাম ও গান । সেই গানটি হয়ে যায় সুপারহিট । ৯০’র শুরুতে চিরচেনা নাটোর থেকে চলে আসেন ঢাকা শহরে । ঢাকা শহরের একটি বাড়ির চিলেকোঠায় ভাড়া থাকতেন । সেই চিলেকোঠার জানালা খুললেই রাতের আকাশের চাঁদটা শিবলির ঘরে ঢুকে যেতো । যে চাঁদের সাথে কথা বলে একাকি শিবলি’র সময় কেটে যেতো । শিবলির বিছানা থেকে শুয়েই পুরো আকাশ ও আকাশের চাঁদটা স্পষ্ট দেখা যেতো । সেই জেগে থাকা চাঁদ নিয়ে শিবলি লিখলেন ‘ জানালা ভরা আকাশ ‘ গানটি যা আজো শ্রোতারা শুনেই যাচ্ছে । এক মধ্যরাতে চিরচেনা নাটোর স্টেশনে ট্রেন থেকে নেমে হেঁটে যাচ্ছিলেন । যে চেনা স্টেশনটি রাতের বেলায় শিবলি’র কাছে অচেনা মনে হলো। শিবলিকেও চেনা অনেকের কাছে অচেনা মনে হলো যে স্মৃতিটি বর্ণনা করেছিলেন ‘নাটোর স্টেশন’ গানটিতে । এমনিভাবে জীবনের নানা ঘটনাকে শিবলি গানের কথায় তুলে ধরেছিলেন । অভিভাবকদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে একদল গানপাগল তরুণ ব্যান্ড সংগীতের মাধ্যমে বাংলা গানের ধারায় যে-পরিবর্তন এনেছে, শিবলী তাদেরই অন্যতম। যুগযন্ত্রণার ক্ষ্যাপামো মজ্জাগত বলেই প্রথা ভাঙার যুদ্ধে শিবলী হয়ে ওঠেন আপাদমস্তক ‘রক’। আধুনিক জীবনযন্ত্রণাগ্রস্ত তারুণ্যের ভাষাকে শিবলী উপস্থাপন করেছেন অত্যন্ত সহজসরল ‘রক’ এর ভাষায়। তাঁর সাফল্য এখানেই । তাই অল্প সময়ের মধ্যেই শিবলী পরিণত হয়েছেন এদেশের ব্যান্ড সংগীতজগতের কিংবদন্তি গীতিকবিতে।

শিবলি শুধু নিজেকে গান লিখার মধ্যেই আবদ্ধ রাখেননি । তিনি নাট্যকার, মডেলিং , অভিনেতা হিসেবেও আমাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছিলেন । ৯০ দশকের মাঝামাঝি সময়ে ‘সেঞ্চুরি ফেব্রিকস’ এর বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে আসেন যেখানে তিনি ছিলেন চুলের ঝুঁটিবাধা ফ্যাশন সচেতন এক মানুষ যেখানে তিনি হলেন ‘কমপ্লিট ম্যান’ । বিটিভি’র প্যাকেজ নাটকের শুরুর দিকে তাঁর লিখা ‘তোমার চোখে দেখি’ নাটকটি বেশ সাড়া ফেলেছিল । সেটি ছিল শিবলি’র লিখা প্রথম কোন টেলিভিশন নাটক । এরপর নিজেরই লিখা ‘রাজকুমারী’ নাটকে মির্জা গালিব নামের মূল চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শমী কায়সারের সাথে ।

নিজের লিখা গানগুলোকে নিজেই সুর দিয়ে নিজের কণ্ঠে তুললেন ‘নিয়ম ভাঙ্গার নিয়ম’ অ্যালবামে। যা ছিল শিবলির নিজের লিখা,সুর ও কণ্ঠের প্রথম অ্যালবাম (এখন পর্যন্ত একমাত্র অ্যালবাম) । সেই অ্যালবামে শিবলি সমাজের বিভিন্ন অনিয়ম, অবক্ষয়ের বিরুদ্ধে কণ্ঠটি সোচ্চার করেছিলেন যা ছিল অনবদ্য একটি অ্যালবাম । গেলো কুরবানি ঈদে শিবলি’র লিখা দুটি নাটক ‘এনটিভি’ চ্যানেলে প্রদর্শিত হয়েছে । এভাবে একজন লতিফুল ইসলাম শিবলি আমাদের মাঝে বারবার হাজির হয়েছেন তাঁর দারুন সব কাজ নিয়ে। তবে সবকিছু ছাপিয়ে তিনি বাংলা গানের শ্রোতাদের কাছে একজন প্রিয় গীতিকার হয়েই আছেন ও থাকবেন চিরকাল । বাংলা ব্যান্ড সংগীতের শ্রোতাদের কাছে তিনি একজন জীবন্ত কিংবদন্তি ।
আইয়ুব বাচ্চু / এলআরবি – কষ্ট পেতে ভালবাসি , কেউ সুখি নয় , হাসতে দেখো, গাইতে দেখো , মাকে বলিস , কষ্ট কাকে বলে, রাজকুমারী, আহা জীবন, নীল বেদনা , একটা চাকরি হবে, চাঁদমামা? , কার কাছে যাবো? , বড়বাবু মাস্টার , চাই জল , মানুষ বড় একা , ও আমার প্রেম , কষ্ট পেলে নষ্ট হব কেন , তুমি নও, আমার বেদনা আমি বুঝি , প্রিয়তমা তুমি কখনো পুরোন হবেনা , যাবে যদি চলে যাও , খুব সাধারন জীবন আমার , রংধনু হয়ে যাই , বন্দী জেগে আছে, নীল সাগরের হিমেল বাতাসে , আর্তনাদ, চলে গেলেই বুঝতে পারি এসেছিলে তুমি… আরও অনেক ।

জেমস/ ফিলিংস/ নগরবাউল- জেল থেকে বলছি , পালাবে কোথায় , কত কষ্টে আছি , একজন বিবাগি , জোসি প্রেম , নাটোর স্টেশন, প্রিয় আকাশি , ভালবাসার যৌথ খামার , মধ্যরাতের ডাকপিয়ন , মন্নান মিয়ার তিতাস মলম , জঙ্গলে ভালবাসা , কতটা কাঙাল হয়ে থাকি , ঘুমাও তুমি , গিটার কাঁদতে জানে , জানালা ভরা আকাশ , নীল আকাশ যত দূর দেখা যায় , পেশাদার খুনি , সাড়ে তিন হাত ভুমি, ব্যাবিলন ….আরও অনেক ।

অন্যান্য শিল্পীদের কণ্ঠে – তুমি আমার প্রথম সকাল (তপন ও শাকিলা জাফর) , হাত বাড়ালেই বন্ধু হবো ( টিপু ) , নিঝুম রাতের তারার মেলায় (আগুন ও সুমনা হক), মাঝে কিছু বছর গেলো (সুমনা হক) , বৃষ্টি দেখে অনেক কেঁদেছি (সোলস), পলাশির প্রান্তর (মাইলস), কিভাবে আমায় কাঁদাবে বলো ( খালিদ), লাশ কাটা ঘর (নীলয় দাশ), প্রেমিক মেয়র (সোলস), পায়ের আওয়াজ শুনি (সোলস), দূরে কোথাও হারাবার ( ঝলক) , তুমি আর কারো নও (চন্দন ) , মনে পড়ে গেলো (নীলয় ও ফাহমিদা) , যত দূর যত পথ (আজম খান ) -এমন আরও অনেক দারুন গানে জড়িয়ে আছে একজন লতিফুল ইসলাম শিবলি’র নাম ।

অভিনয়ের উপর এক বছরের ডিপ্লোমা কোর্স শেষে গ্রুপথিয়েটার নাট্যচক্রের সঙ্গে মঞ্চনাটকে কাজ করতে করতেই ধীরে ধীরে বিকশিত হতে থাকেন শিল্পের অন্যান্য মাধ্যমে। আধুনিক জীবনযন্ত্রণাগ্রস্ত তারুণ্যের ভাষাকে শিবলী উপস্থাপন করেছেন অত্যন্ত সহজসরল ‘রক’ এর ভাষায়। তার সাফল্য এখানেই । তাই অল্প সময়ের মধ্যেই শিবলী পরিণত হয়েছেন এদেশের ব্যান্ড সংগীতজগতের কিংবদন্তি গীতিকবিতে । নিজের লেখা নাটক ‘রাজকুমারী’তে(১৯৯৭) মির্জা গালিব চরিত্রে নিজের অনবদ্য অভিনয় অনেকের মন কেড়েছে। বাংলা একাডেমী প্রকাশ করেছে তার ‘বাংলাদেশে ব্যান্ড সংগীত আন্দোলন'(১৯৯৭) নামে ব্যান্ড সংগীতের ওপর লিখিত প্রথম এবং একমাত্র গবেষণাধর্মী প্রবন্ধগ্রন্থ। শিবলী’র কাহিনী সংলাপ এবং চিত্রনাট্যে প্রথম পূর্ণদৈঘ্য চলচ্চিত্র ‘পদ্ম পাতার জল’

ব্যক্তিগত জীবনে দুই সন্তানের জনক লতিফুল ইসলাম শিবলী। একজনের নাম ওমর এবং অন্যজনের নাম ওসমান।

কাব্যগন্থ

ইচ্ছে হলে ছুঁতে পারি তোমার অভিমান (১৯৯৫)

তুমি আমার কষ্টগুলো সবুজ করে দাও না (২০১০)

মাথার উপরে যে শূন্যতা তার নাম আকাশ, বুকের ভেতরে যে শূন্যতা তার নাম দীর্ঘশ্বাস (২০১৪)

উপন্যাস

দারবিশ বইমেলা ২০১৭

দখল বইমেলা ২০১৮

গবেষণাধর্মী প্রবন্ধগ্রন্থ

বাংলাদেশে ব্যান্ড সংগীত আন্দোলন (১৯৯৬)

নাটক

তোমার চোখে দেখি

রাজকুমারী

হাইওয়ে টু হেভেন

গুড সিটিজেন

নুরু মিয়া দ্য পেইন্টার

যতো দূরে থাকো

বৃষ্টি আমার মা

রান বেইবি রান

শহরের ভেতর শহর

সেকেন্ড চান্স

স্পন্দন

চলচ্চিত্র

পদ্ম পাতার জল

লতিফুল ইসলাম শিবলী’র লেখা উল্লেখযোগ্য কিছু গান

আইয়ুব বাচ্চু / এলআরবি – কষ্ট পেতে ভালবাসি , কেউ সুখি নয় , হাসতে দেখো, গাইতে দেখো , মাকে বলিস , কষ্ট কাকে বলে, রাজকুমারী, আহা জীবন, নীল বেদনা , একটা চাকরি হবে, চাঁদমামা? , কার কাছে যাবো? , বড়বাবু মাস্টার , চাই জল , মানুষ বড় একা , ও আমার প্রেম , কষ্ট পেলে নষ্ট হব কেন , বাচ্চু তুমি নও, আমার বেদনা আমি বুঝি , প্রিয়তমা তুমি কখনো পুরোন হবেনা , যাবে যদি চলে যাও , খুব সাধারন জীবন আমার , রংধনু হয়ে যাই , বন্দী জেগে আছে, নীল সাগরের হিমেল বাতাসে , আর্তনাদ, চলে গেলেই বুঝতে পারি এসেছিলে তুমি… আরও অনেক ।

জেমস/ ফিলিংস/ নগরবাউল– জেল থেকে বলছি , পালাবে কোথায় , কত কষ্টে আছি , একজন বিবাগি , জোসি প্রেম , নাটোর স্টেশন, প্রিয় আকাশি , ভালবাসার যৌথ খামার , মধ্যরাতের ডাকপিয়ন , মন্নান মিয়ার তিতাস মলম , জঙ্গলে ভালবাসা , কতটা কাঙাল হয়ে থাকি , ঘুমাও তুমি , গিটার কাঁদতে জানে , জানালা ভরা আকাশ , নীল আকাশ যত দূর দেখা যায় , পেশাদার খুনি , সাড়ে তিন হাত ভুমি, ব্যাবিলন ….আরও অনেক ।

অন্যান্য শিল্পীদের কণ্ঠে – তুমি আমার প্রথম সকাল (তপন ও শাকিলা জাফর) , হাত বাড়ালেই বন্ধু হবো ( টিপু ) , নিঝুম রাতের তারার মেলায় (আগুন ও সুমনা হক), মাঝে কিছু বছর গেলো (সুমনা হক) , বৃষ্টি দেখে অনেক কেঁদেছি (সোলস), পলাশির প্রান্তর (মাইলস), কিভাবে আমায় কাঁদাবে বলো ( খালিদ), লাশ কাটা ঘর (নীলয় দাশ), প্রেমিক মেয়র (সোলস), পায়ের আওয়াজ শুনি (সোলস), দূরে কোথাও হারাবার ( ঝলক) , তুমি আর কারো নও (চন্দন ) , মনে পড়ে গেলো (নীলয় ও ফাহমিদা) , যত দূর যত পথ (আজম খান ) -এমন আরও অনেক দারুন গানে জড়িয়ে আছে একজন লতিফুল ইসলাম শিবলি’র নাম ।।

শিবলি’র লেখা গান থেকে অল্প কিছু গানের লিংক –

নাটোর স্টেশন (জেমস)-https://app.box.com/s/4s43qxj2fqxtu1xquxam

পালাবে কোথায় (জেমস)-https://app.box.com/s/439390825d43edf79624

মধ্যরাতের ডাকপিয়ন (জেমস)-https://app.box.com/s/qqs02d4q9y8lg2vodgru

কেউ সুখি নয় (আইয়ুব বাচ্চু) – https://app.box.com/s/1mv4lbd1a79f1albzjgf

ও আমার প্রেম (আইয়ুব বাচ্চু) – https://app.box.com/s/tjl0qqfhhqqoicw0gqk5

দূরে কোথাও হারাবার (ঝলক)-https://app.box.com/s/pcpiugsoiyg2tosdts1v

পলাশীর প্রান্তর (মাইলস)-https://app.box.com/s/ct8zar0hmn4vls9nki7f

তুমি আমার প্রথম সকাল (তপন ও শাকিলা)- https://app.box.com/s/a5e3b8cf530ed00db8de

নিঝুম রাতের মেলায় ( আগুন ও সুমনা) – https://app.box.com/s/53e167e13cc9fa39da55

মনে পড়ে গেলো (নীলয় ও ফাহমিদা)- https://app.box.com/s/a6bb0bcbfb200cc2b16d

হাত বাড়ালেই বন্ধু হবো (টিপু) – https://app.box.com/s/fyqm86h3xhvjl2cspvag

লাশকাটা ঘর ( নিলয় দাশ)- https://app.box.com/s/bccw01ozsb2de7o1jgxl

ছুটি পেলে এবার মাগো ( লতিফুল ইসলাম শিবলী)- https://app.box.com/s/rldxme3q2120fo70be80

নাগরিক কবিয়াল (লতিফুল ইসলাম শিবলি)- https://app.box.com/s/hsgo1rinq9j5sgcl5g2n

আল্লাহু আকবর (লতিফুল ইসলাম শিবলি) https://app.box.com/s/4svcejq9avop96xjvr4d

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *