শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ, এমপি নিহত

:: নাগরিক নিউজ ডেস্ক ::

শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দ্র রাজাপাকসে পদত্যাগ করেছেন। অর্থনৈতিক পরিস্থিতি খারাপ হয়ে যাওয়ায় ও সরকার বিরোধী আন্দোলন বেগবান হওয়ার জেরে পদত্যাগ করেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা করে দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতবায়া রাজাপাকসে প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দ্র রাজাপাকসেকে পদত্যাগ করার অনুরোধ জানান। 

এদিন সরকার বিরোধী আন্দোলনে অমরকীর্থী আঠুকোরলা নামে একজন সরকারদলীয় একজন এমপি নিহত হয়েছেন। 

সোমবার শ্রীলংকার নিতাম্বুওয়া শহরে সরকার দলীয় এমপি অমরকীর্থী আঠুকোরলার গাড়ির সামনে পথ আটকে বিক্ষোভ করছিল কিছু লোক। 

এসময় তাদের দিকে গুলি ছোড়েন অমরকীর্থী, এতে অন্তত দুজন গুরুতর আহত হন। এরপর পার্শ্ববর্তী একটি ভবনে আশ্রয় নেওয়ার চেষ্টা করেন ওই এমপি। পরে সেখানে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

তিনি কিভাবে নিহত হন সে বিষয়টি এখনো জানা যায়নি।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করায় প্রেসিডেন্ট সর্বদলীয় মন্ত্রীসভা গঠনের জন্য সংসদের অধিবেশনে সকল দলকে ডাকতে পারেন।  

এদিকে এর আগে শ্রীলংকার বিরোধী দল সামাজি জানা বালাওয়েগানা নিশ্চিত করে, মাহিন্দ্র রাজাপাকসে পদত্যাগ করলেও তাদের দলের প্রধান সাজিথ প্রেমাদাসা অন্তবর্তীকালীন সরকারের প্রধানমন্ত্রী হবেন না। 

এর আগে সোমবার সকালে রাজাপাকসের সমর্থকরা প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ করেন যেন তিনি পদত্যাগ না করেন। 

এরপর রাজাপাকসের সমর্থক ও বিরোধী দলীয় সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

এই সংঘর্ষের পর একটি টুইট করে ৭৬ বছর বয়সী রাজাপাকসে সকলকে শান্ত থাকার আহ্বান জানান। 

তিনি আরও জানান, অর্থনৈতিক মন্দা কাটিয়ে ওঠার জন্য যাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তারা সেই দায়িত্ব পালন করবেন।

সোমবার দেশটিতে সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

সংঘর্ষের সূত্রপাত হয় মূলত মাহিন্দ্র রাজাপাকসের সমর্থকদের মাধ্যমে। তারা সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনের সামনে তার সমর্থনে অবস্থান নেন। 

এরপর তারা বাসভবনের সামনে আগে থেকে অবস্থানরত সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা করেন। আর এরপরই শুরু হয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। 

জানা গেছে এ সংঘর্ষে অন্তত ১০০ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। 

সংঘর্ষের পর কলম্বোতে তাৎক্ষণিকভাবে কার্ফিউ জারি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *